রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম ::
সুনামগঞ্জ সদরে বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন শীতকালীন সবজি হিসেবে শিমের চাষ শুরু করেছে কৃষকরা নোয়াখালী চাটখিলে ভূয়া সিআইডি কর্মকর্তা আটক ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদে পাওয়া গেল ডলফিন; কেটে চর্বি বিক্রি করল জেলেরা জলঢাকায় ইউএনও মাহবুব হাসানের পুজা মন্ডপ পরিদর্শন ও শুভেচ্ছা বিনিময় তাহিরপুরে SWF এর বাস্তবায়নে ওয়াস কমিটিদের দক্ষতা ট্রেনিং অনুষ্ঠিত নোয়াখালীর প্রবীণ সাংবাদিক আহসান উল্যা মাষ্টার চলে গেলেন না ফেরার দেশে চুয়াডাংগা জেলার খেজুরের গাছ ঝুড়াইয়ে ব্যস্ত গাছিরা আগাম ফুলকপি চাষে লাভবান ঠাকুরগাঁওয়ের কৃষক রাবি শিক্ষার্থী মুস্তাফিজের খুনিদের ধরতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম রাজধানীর সাভারে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে রাবি ছাত্রের মৃত্যু ৮০বোতল ফেনসিডিলসহ আকন্দবাড়িয়ার সিহাব যশোরে ডিবির হাতে গ্রেফতার ব্যাপক জমে উঠেছে পুরাতন মোটরসাইকেলের হাট আলমডাঙ্গা অনুমোদনহীন ওষুধ বিক্রি করায় আনোয়ারায় ৩ ফার্মেসিকে জরিমানা দোয়ারাবাজারে নানার হাতে নাতনী ধর্ষিত
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ইন্তেকাল করেছেন

এম.এ শামীম ভূঁইয়া
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) মারা গেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। তিনি বাংলাদেশের ১৩তম অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন।

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেন। তার বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। মাহবুবে আলমের ছেলে সুমন মাহবুব বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এক বার্তায় মাহবুবে আলমের ছেলে সুমন মাহবুব বলেন, আমার বাবা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সন্ধ্যা ৭টা ২৫ মিনিটে মারা যান।

স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন তিনি।

জ্বর ও গলা ব্যথা নিয়ে গত ৪ সেপ্টেম্বর সিএমএইচে ভর্তি হন রাষ্ট্রের প্রধান এই আইন কর্মকর্তা। ওইদিনই করোনা পরীক্ষা করালে রিপোর্ট পজিটিভ আসে

১৮ সেপ্টেম্বর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মাহবুবে আলমকে আইসিইউতে নেয়া হয়

২০ সেপ্টেম্বর করোনা (কোভিড-১৯) পরীক্ষায় তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তবে শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় রাখা হয় আইসিইউতে।

সুপ্রিম কোর্টের এ সিনিয়র আইনজীবী ১৯৭৫ সালে হাইকোর্টে আইন পেশায় যুক্ত হন। ১৯৯৮ সালের ১৫ নভেম্বর থেকে ২০০১ সালের ৪ অক্টোবর পর্যন্ত অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেন।

মাহবুবে আলম সুপ্রিম কোর্ট বারের ১৯৯৩-৯৪ সালে সম্পাদক ও ২০০৫-২০০৬ সালে সভাপতি নির্বাচিত হন। পরে ২০০৯ সালের ১৩ জানুয়ারি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন।

তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু হত্যা, জাতীয় চার নেতা হত্যা, সংবিধানের এয়োদশ ও ষোড়শ সংশোধনীসহ ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি করেন।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com

বিজ্ঞাপন

ডেইলি সংবাদ প্রতিদিন মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102