শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম ::
মাদক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ থেকে আগামী প্রজম্ন কে রক্ষা করতে খেলা ধুলার কোন বিকল্প নেই ইসলামপুর জামে মসজিদ সংলগ্ন রাস্তা সংস্কারের কাজে শুভ উদ্ভোধন রাবি উপাচার্যের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের উৎস অনুসন্ধানের সুপারিশ ইউজিসি অসহায় কলেজ ছাত্রের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন এমপি মুকুল নোয়াখালীর হাতিয়ায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ নোয়াখালীতে অস্ত্রেরমুখে প্রবাসীর স্ত্রী ধর্ষণ, যুবলীগ নেতা বহিষ্কার, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার দর্শনার জয়নগর চেকপোস্ট সরেজমিনে পরিদর্শন করলেন ভারতের নয়াদিল্লীতে নিযুক্ত বাংলাদেশি হাই কমিশনার ক্যাম্পাসের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান হেফাজতে মৃত্যু নিবারণ আইন নিয়ে মানুষের অজ্ঞতা দূর করতে হবে আনোয়ারায় তৈলারদ্বীপে ২ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই নোয়াখালী সেনবাগে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক -৩ নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশফাড়ি সীমান্তে বিজিবির সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে ১ রোহিঙ্গা মাদক পাচারকারী নিহত শৈলকুপায় বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্প সরাইল উপ-নির্বাচনে জাল ভোট দেওয়ার চেস্টায় ৩ তরুনীর কারাদণ্ড নোয়াখালী সৎ মা-ছেলের দ্বন্দ্বে ঘরে আগুন, মায়ের মৃত্যু
মোট আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট

বখাটেপনা ও মাদক গ্রহণের দায়ে কারাগারে না পাঠিয়ে লাগাতে হবে গাছ, করতে হবে বাবা-মায়ের সেবা

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ১৪ অক্টোবর, ২০২০

বখাটেপনা ও মাদক গ্রহণের দায়ে কারাগারে না পাঠিয়ে প্রবেশনে নিজ বাড়িতে থেকে ১৪ শিশুকে সাজা ভোগ করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার (১৪ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে একসঙ্গে ১০টি পৃথক মামলার রায়ে সুনামগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জাকির হোসেন এ আদেশ দেন।

সাজাপ্রাপ্ত শিশুদের অপরাধের মধ্যে রয়েছে- পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস করে টাকা গ্রহণ, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছবি ভিকটিমের ছবির সঙ্গে সংযুক্ত করে ফেসবুকে ছড়িয়ে অশ্লীল ও মানহানিকর তথ্য প্রকাশ, পুলিশকে গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিলে বাধা প্রদান ও আসামি পলায়নে সহায়তা, শ্লীলতাহানি, লাঠি দিয়ে মারপিট, মাদক রাখা এবং জুয়া খেলা। ১০টি পৃথক মামলার বিভিন্ন ধারা পর্যালোচনা ও শুনানি শেষে আদালত একসঙ্গে দেয়া রায়ে অপরাধে জড়িত ১৪ জন শিশুকে নিজ বাড়িতে থেকে সাজা ভোগ করার আদেশ দেন। এ সময় তাদের পর্যবেক্ষণে রাখবেন প্রবেশন কর্মকর্তা শাহ মো. শফিউর রহমান।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) নান্টু রায় বলেন, আদালত ১০টি শিশু অপরাধের মামলায় একসঙ্গে যুগান্তকারী একটি রায় দিয়েছেন। আদেশে আদালত বলেছেন, প্রবেশনের সময় অপরাধে জড়িত শিশুদের বাবা-মায়ের আদেশ মানতে হবে এবং বাবা-মায়ের সেবাযত্ন করতে হবে। ধর্মীয় অনুশাসন মানতে হবে ও ধর্মগ্রন্থ পাঠ করতে হবে। তারা প্রত্যেকে কমপক্ষে ২০টি করে গাছ লাগাবে ও পরিচর্যা করবে। অসৎসঙ্গ ত্যাগ ও মাদক থেকে দূরে থাকতে হবে। ভবিষ্যতে কোনো অপরাধের সঙ্গে নিজেকে জড়াতে পারবে না। প্রবেশন কর্মকর্তা শাহ মো. শফিউর রহমান বলেন, আদালতের উদ্দেশ্য হচ্ছে- শিশুদের কারাগারে না দিয়ে প্রবেশনের সময় পারিবারিক বন্ধনে রেখে সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা। প্রবেশন কর্মকর্তা এবং শিশুদের অভিভাবকরা নিবিড় তত্ত্বাবধানে রেখে ভবিষ্যতে যাতে শিশুরা অপরাধে না জড়ায় সেদিকে লক্ষ্য রাখা। জীবনের শুরুতেই যাতে শাস্তির কালিমা তাদের স্পর্শ না করে সেজন্য শাস্তি না দেয়া। সংশোধনাগারে অন্য যারা বিভিন্ন অপরাধে আটক আছে তাদের সংস্পর্শ থেকে দূরে রাখা। পরিবারের সংস্পর্শে রেখে শিশুদের স্বাভাবিক মানসিক বিকাশের ব্যবস্থা করা। সর্বোপরি শিশুর সার্বিক কল্যাণ সাধন করাই আদালতের উদ্দেশ্য।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com

বিজ্ঞাপন

ডেইলি সংবাদ প্রতিদিন মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২০
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102